শনিবার, ডিসেম্বর ৩, ২০২২
The Report
ডিপিএস এসটিএস (দিল্লি পাবলিক) স্কুলে দ্য আর্টফুল টাচ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

ডিপিএস এসটিএস (দিল্লি পাবলিক) স্কুলে দ্য আর্টফুল টাচ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

টিএনএন ডেস্ক
প্রকাশের সময় : November 07, 2022 | বিনোদন

চিত্রশিল্পী হাশেম খানের সান্নিধ্যে আঁকিবুকিতে মেতে উঠেন শিক্ষার্থীরা

দিল্লি পাবলিক স্কুল ঢাকা (ডিপিএস এসটিএস) সম্প্রতি এর প্রাইমারি স্টুডেন্টদের (প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থী) জন্য একটি শিল্প বিষয়ক কর্মশালার আয়োজন করে। এ আয়োজনের মাধ্যমে ভবিষ্যতের চিত্রশিল্পীরা কর্মশালার প্রধান অতিথি কিংবদন্তি চিত্রশিল্পী হাশেম খানের কাছ থেকে শিল্প-বিষয়ক বিভিন্ন বিষয় শেখার সুযোগ পান। এ কর্মশালাটি রাজধানী উত্তরায় অবস্থিত ডিপিএস এসটিএস স্কুলের জুনিয়র ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় স্কুলটির গ্রেড ৩ এবং ৪ এর শিক্ষার্থীরা অংশ নিয়ে একুশে পদক জয়ী কিংবদন্তি শিল্পীর কাছ থেকে বিভিন্ন পরামর্শ গ্রহণ করেন, যা তাদেরকে শিল্প ও কারুশিল্পের প্রতি তীব্র অনুরাগের বিষয়ে অনুপ্রেরণা যুগিয়েছে। ‘আর্ট ওয়ার্কশপ - দ্য আর্টফুল টাচ’ শীর্ষক এ কর্মশালায় শিল্পী হাশেম খান একটি এক্সক্লুসিভ সেশন পরিচালনা করেন। কিংবদন্তি এ শিল্পীর সহচার্যে রং নিয়ে খেলার সুযোগ পেয়ে শিক্ষার্থীরা উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন এবং তাদের অভিভাবকরাও এই উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করেন। এ আয়োজন নিয়ে গ্রেড ৩ এ অধ্যয়নরত একজন শিক্ষার্থীর অভিভাবক রোকসানা মার্জিয়া রুমি বলেন, “গৎবাঁধা জীবনধারা শিক্ষার্থীদের জীবনকে কখনো কখনো নিরস করে তোলে। তাই, তাদের গৎবাঁধা জীবনে বিরতি নিয়ে আসার মাধ্যমে তাদের জীবনকে আনন্দময় করে তুলতে আমাদের বিভিন্ন সুযোগ তৈরি করতে হবে।” তিনি আরো বলেন, “যদি সেই বিরতিটি একটি আনন্দদায়ক শেখার সুযোগ তৈরি করে তবে এর মতো আর কিছুই নেই! শিশুরা আজ এখানে শিল্প কর্মশালায় ঠিক সেই সুযোগটি খুঁজে পেয়েছে। একজন অভিভাবক হিসেবে, আমি এই উদ্যোগের জন্য ডিপিএস এসটিএস এবং প্রধান অতিথি বরেণ্য শিল্পী হাশেম খানের কাছে সম্পূর্ণরূপে কৃতজ্ঞ।” এ নিয়ে শিল্পী হাশেম খান বলেন, “আমি সব সময় বিশ্বাস করি শিশুদের শিল্পের মাধ্যমে নিজেকে প্রকাশ করার সর্বোচ্চ ক্ষমতা রয়েছে; কারণ তাদের কল্পনা শক্তি অসীম এবং তাদের কল্পনা কখনো স্থির থাকে না। আমি ডিপিএস এসটিএস আয়োজিত এ সেশনটি উপভোগ করেছি। এ রকম চমৎকার একটি আয়োজনের জন্য আমি কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানাই।” কলম এবং কাগজ দিয়ে ডুডলিং ছাড়াও, অংশগ্রহণকারী শিশুদের স্কুলের পক্ষ থেকে একটি টি-শার্ট, স্ন্যাকস এবং অংশগ্রহণের প্রশংসাপত্র প্রদান করা হয়।